Homeবিবিধচোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় 'যশ', মোকাবিলায় প্রস্তুত রাজ্য

চোখ রাঙাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’, মোকাবিলায় প্রস্তুত রাজ্য

Outlinebangla Desk: আমফানের স্মৃতি উসকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘যশ’ (Cyclone Yaas)। পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হওয়া নিম্নচাপ রবিবার ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। যদিও এর তীব্রতা কতটা হতে পারে তা এখনও বোঝা যাচ্ছে না। তবে ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী ২০ থেকে ২২ মে এর মধ্যে পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে তৈরি হতে পারে ঘূর্ণাবর্তটি। সাগরে অনুকূল পরিবেশ থাকায় ঘূর্ণাবর্তটি ক্রমশ শক্তি সঞ্চয় করে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। ২২ মে বিকেলের পর থেকে ঘূর্ণিঝড় যশ স্থলভাগের দিকে এগোতে শুরু করবে। অনুমান করা হচ্ছে যশ-এর গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় ১৩৫-১৪০ কিলোমিটার হতে পারে। ২৫ মে মধ্যরাত থেকে ২৬ মে ভোরের মধ্যে হতে পারে ল্যান্ডফল। এমনকি ঘূর্ণিঝড়টি সুপার সাইক্লোনেও পরিণত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

যদিও ঘূর্ণিঝড়ের অভিমুখ দেখে কিছু বোঝা যাচ্ছে না। তবু বাংলা-ওড়িশা উপকূল এলাকাতেই ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। দিঘার কাছাকাছি ঘূর্ণিঝড়টি আছড়ে পড়তে পারে। ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে কলকাতা সহ পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। আগে থেকেই ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলাযর জন্য প্রস্তুত হচ্ছে রাজ্য। নবান্নে বুধবার মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ঘূর্ণিঝড় নিয়ে একটি বৈঠক হয়। সেখানে বলা হয়েছে নীচু এলাকায় যারা থাকেন তাদের সরিয়ে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হবে। তাছাড়া সব রকম প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে রাজ্য। মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যাওয়ার ক্ষেত্রে সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছে।

এই মুহূর্তে