Homeবিবিধনন্দীগ্রামে তৃণমূল নেত্রীর পায়ে আঘাত লাগা নিয়ে বিতর্ক, এবার মামলা গড়াল শীর্ষ...

নন্দীগ্রামে তৃণমূল নেত্রীর পায়ে আঘাত লাগা নিয়ে বিতর্ক, এবার মামলা গড়াল শীর্ষ আদালতে

আউটলাইন বাংলা ডিজিটাল ডেস্কঃ দ্বিতীয় দফা ভোটে নজরকাড়া কেন্দ্র ছিল নন্দীগ্রাম। ভোটের আগে সেই নন্দীগ্রামে প্রচারে গিয়ে পায়ে আঘাত লেগেছিল তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সেই আঘাতের পর থেকেই তৃণমূল নেত্রী হুইল চেয়ারে বসেই সভা করে চলেছেন। কিন্তু কিভাবে লাগল এই আঘাত? নন্দীগ্রামে ঠিক কী ঘটেছিল? তা খতিয়ে দেখতে সিবিআই তদন্তের আর্জি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করলেন তিন আইনজীবী – শুভম আবস্তি, আকাশ শর্মা, সপ্তর্ষি মিশ্র।

নন্দীগ্রাম থেকে তৃণমূল প্রার্থী হিসাবে ভোটে দাঁড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ১০ই মার্চ নন্দীগ্রামে প্রচারে গিয়ে পায়ে চোট পান তিনি। তৃণমূল নেত্রী অভিযোগ করেন এটি বিরোধী দলের কাজ। পূর্বপরিকল্পনা করে কয়েকজন এসে তাঁর গাড়ির দরজা বন্ধ করে দেওয়ায় তিনি পায়ে আঘাত পান। এই ঘটনার পর তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ জানানো হয়েছিল এবং ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে রাজভবনে ঘটনার পুরো রিপোর্ট জমা দেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডিজিপি নীরজনয়ন।

স্থানীয় পুলিশ, ভিডিও ফুটেজ এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানের ভিত্তিতে রিপোর্ট তৈরি হয়। বাংলা নিযুক্ত পর্যবেক্ষকও মুখ্যসচিবের রিপোর্টের ভিত্তিতে কমিশন স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন নন্দীগ্রামের ঘটনা কেবলই একটি দুর্ঘটনা। মমতার উপর কোনো হামলা করা হয়নি।তবে এই দাবি মানতে নারাজ তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যরা। ফলে তৃণমূল নেত্রী যা বলেছেন তার সত্যতা কতটুকু। সেইজন্য সিবিআই তদন্তের প্রয়োজন বলে মনে করছেন তিন আইনজীবী। শীর্ষ আদালতে এই মামলায় কমিশন, বাংলার রাজ্য সরকার, সিবিআই ও কেন্দ্রীয় সরকারকে বানানো হয়েছে।

এই মুহূর্তে