সংশোধনাগারে থাকা নেশাগ্রস্ত যুবকের চিকিৎসা করতে গিয়ে আক্রান্ত চিকিৎসক সহ নিরাপত্তারক্ষী

The doctor was injured while treating the drug addict youth at suri hospital
সংশোধনাগারে থাকা নেশাগ্রস্ত যুবকের চিকিৎসা করতে গিয়ে আক্রান্ত চিকিৎসক সহ নিরাপত্তারক্ষী

নিজস্ব সংবাদদাতা, রিনটু পাঁজা, সিউড়ি: দিনদিন যুব সমাজের অনেকেই নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছেন তাদের সুস্থ করে তুলতে চিকিৎসার জন্যে পুলিশ প্রশাসন থেকে চিকিৎসকেরা যথেষ্ঠ ভূমিকা পালন করে চলেছে। কিন্তু সেই চিকিৎসকরাই নেশাগ্রস্থ যুবকের হাতে আক্রান্ত হতে হলো এবার। হাসপাতালে পুলিশ সেলে থাকা নেশাগ্রস্ত যুবকের চিকিৎসা করতে গিয়ে আক্রান্ত চিকিৎসক সহ দুই নিরাপত্তারক্ষী। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূম জেলার সিউড়ি হাসপাতালে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, হাসপাতালের পুলিশ সেলে থাকা ওই নেশাগ্রস্ত যুবককে রাখা হয়েছিল চিকিৎসার জন্যে। মেডিসিন এর চিকিৎসক অভিষেক রায় ও সাইক্রাইটিস্ট জিষ্ণু ভট্টাচার্যের চিকিৎসাধীন ছিল ওই যুবক। শুক্রবার রাত ২ টো নাগাদ হটাৎ ওই যুবক খুবই উত্তেজিত হয়ে পড়লে খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান দুই চিকিৎসক। তাকে ঔষধ দিতে গেলে ওই যুবক চিকিৎসকদের লক্ষ্য করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, লোহার সামগ্রী সহ কাঁচ ছুড়তে থাকেন চিকিৎসক দের লক্ষ্য করে। কাঁচের আঘাতে চিকিৎসক জিষ্ণু ভট্টাচার্য এর মুখে একাধিক জায়গায় কেটে যায় আহত হন তিনি। এছাড়াও হাসপাতালের একজন নিরাপত্তারক্ষী এবং একজন কর্তব্যরত পুলিশ কর্মীও আহত হয়েছেন।

চিকিৎসক জিষ্ণু ভট্টাচার্য বলেন “পুলিশ সেলে ওই যুবক কিভাবে কাঁচ, লোহার মত জিনিসগুলি পেল? কেনই বা পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি দেখা হয় নি? এই সমস্ত বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তিনি”। তবে হাসপাতাল সূত্রে খবর, হাসপাতালের পুলিশ সেলের ভেতরে থাকে কাঁচের জানালা, ওই জানালার কাঁচ ভেঙে চিকিৎসক সহ দুই নিরাপত্তারক্ষীকে জখম করে।