Why Dogs Are So Loyal: প্রাণীদের মধ্যে কুকুর কেন এত বিশ্বস্ত হয়?

Outlinebangla: পৃথিবীতে যত প্রাণীর অস্তিত্ব বর্তমানে রয়েছে তাদের মধ্যে মানুষের অন্যতম মনের মতো বন্ধুত্বসুলভ প্রাণী আর কেউ না! আপনি যা ভাবছেন একদমই তাই। এখানে কুকুরের কথা বলা হচ্ছে (Why Dogs Are So Loyal)। আমরা একটু চোখ কান খোলা রাখলেই দেখতে পাবো মনিবের জন্য প্রাণ দিচ্ছে কুকুর, এরকম ঘটনা হামেশাই শোনা যায়। কিন্তু ভেবে দেখেছেন কি কেন মনিবের প্রতি এতো ভালোবাসা? কিসের এতো বিশ্বাস? প্রত্যেকটি বিষয়ের পিছনে কোনো না কোনো কারণ থাকবেই তাই কুকুরের বিশ্বস্ততার পিছনেই নিশ্চয়ই কোনো না কোনো কারণ রয়েছ! তবে কি সেই কারণ? এইসমস্ত প্রশ্ন আপনার মাথাতেও ঘুর পাক খেতে থাকলে আজকের আর্টিকেলটি আপনার জন্যই চলুন জেনে নিই (Why Dogs Are So Loyal)।

Why Dogs Are So Loyal

সায়েন্স অ্যাডভান্সেস জার্নাল থেকে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা যায় কুকুরের বিশ্বস্ত হওয়ার পিছনে দায়ী তাদের জিন। একবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একদল বিজ্ঞানী কুকুরের বিশ্বস্ততার বিষয়টি নিয়ে গবেষণা চালিয়েছিলেন। তখন তাঁরা আবিষ্কার করেন নেকড়ের থেকে কুকুর বেশি বন্ধুত্বসুলভ জীব। তবে অনেকের মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে এতো প্রাণী থাকতে কুকুরকে হটাৎ নেকড়ের সাথে তুলনা করার কারন কি! উত্তরটি হলো দুটি প্রাণীই মাংসাশি ও স্তনপায়ী গোত্রের অন্তর্ভুক্ত।
আরও পড়ুনঃ Pets have a magic effect: মন ভালো রাখতে বাড়িতে রাখুন পোষা প্রাণী

শোনা যায় বিগত ৩০-৪০ বছর আগে আদিম মানুষেরা নেকড়েদের পাহারার কাজে ব্যবহার করতো তার পরিবর্তে নিজেদের উচ্ছিষ্ট খাবার তাদেরকে দিতো। তখনকার এই নেকড়েরাই এখনকার আধুনিক কুকুর। যেহেতু একসাথে বসবাসকারী দুটি জীবই উপকৃত হতো তাই এই বিষয়টিকে মিথোজীবিক বন্ধনের সঙ্গে তুলনা করা হয়।
আরও পড়ুনঃ পোষ্য কুকুর থেকে সাবধান, হতে পারে ডায়াবেটিস! বলছে সমীক্ষা

কুকুর মানুষের প্রতি অনুগত কেন?

কুকুর একটি সামাজিক প্রাণী। এই জীবটি সবসময় অন্য যে কোনো প্রাণীর সঙ্গ পছন্দ করে যেটাকে প্যাক মানসিকতার সাথে তুলনা করা হয়। এদের একটি স্বাভাবিক বৈশিষ্ট মানুষের প্রতি আনুগত্যে হওয়া। বিশেষজ্ঞ দের মতামত অনুযায়ী প্যাক মানসিকতায় মানুষের প্রতি অনুগত হওয়ার মূল কারণ।
আরও পড়ুনঃ Most Beautiful Birds: রূপে গুনে সমৃদ্ধ বিশ্বের সেরা পাঁচ পাখির কথা…

কেন কুকুর এতো ভালোবাসতে পারে?

মানুষ এবং কুকুর এই দুই প্রাণীর শরীর থেকে অক্সিটোসিন নামক এক হরমোন নির্গত হয়। এই হরমোনটি একে অপরের প্রতি বন্ধন বাড়াতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। এই ‘লাভ ‘ হরমোনটি সদ্যজাত এবং তার মায়ের বন্ধন মজবুত করে থাকে।

কেন কুকুর এত প্রতিরক্ষামূলক?

কুকুর মানুষের সেরা বন্ধু হিসাবে সকলের কাছেই পরিচিত। অনেক হাজার বছর আগে থেকেই কুকুরের পূর্বপুরুষ নেকড়েরা মানুষকে যত্নের সাথে রক্ষা করে আসছে তারা অনুমান করতে পারে কখন একজন মানুষ্যর প্রতিরক্ষার প্রয়োজন হয়।

প্রতিরক্ষামূলক কয়েকটি কুকুরের নামঃ

রোডেসিয়ান রিজব্যাক (Rhodesian Ridgeback)
ডোবারম্যান পিন্সচার (Doberman Pinscher)
বুলমাস্টিফ (Bullmastiff)
জার্মান শেফার্ডস (German Shepherd)

কুকুর কি বিশ্বস্ত প্রাণীঃ

কুকুরের গন্ধ শোকার অনন্য বৈশিষ্ট রয়েছে। এছাড়াও কুকুর লাফ দিতে পারে, জলে সাঁতার কাটতে পারে। সবচেয়ে বড়ো কথা এই জীবটি তীক্ষ্ণ মনের অধিকারী। এইসব কারণ গুলো থেকে বোঝাই যাচ্ছে কুকুর খুব বিশ্বস্ত একটি প্রাণী।

কুকুর কেন মানুষের উপর এতো বিশ্বাস করেঃ

বিজ্ঞানীদের মতে কুকুরের ছানারা স্বভাবতই নিজেরদের মতো মানুষদেরও সঙ্গ খুব পছন্দ করে। নানান সমীক্ষায় প্রমাণিত হয়েছে জন্মের এক দুমাস পর থেকেই মা এর সাথে সাথে আশেপাশের মানুষদের থেকে সংবেদনশীল ইঙ্গিত গ্রহণ করে।

সম্পর্কিত পোস্টগুলি

আমাদের ফলো করুন

3,920FansLike
47SubscribersSubscribe

না পড়লেই মিস