Saturday, March 6, 2021
Home স্বাস্থ্য লাইফ স্টাইল লকডাউনে ফোন সেক্স, এই বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকুন

লকডাউনে ফোন সেক্স, এই বিষয়গুলিতে সতর্ক থাকুন

আউটলাইন বাংলা: এই লকডাউনে শারীরিক দূরত্ব বেরেছে অনেকটাই, ফলে পাল্লা দিয়ে বেরেছে ফোন সেক্স। সারা পৃথিবী জুড়েই বিশেষজ্ঞরা বলেন যে ফোন সেক্স বিষয়টি আদৌ খারাপ কিছু নয়। কিন্তু তার পরেও কিছু জিনিস মাথায় রাখা উচিত। অনেকের ধারণা মোবাইল ফোন আসার পরেই ফোন সেক্স ট্রেন্ডের উদয়। স্মার্টফোন রেভলিউশনের পরে তা রমরমিয়ে বেড়েছে। গত কুড়ি-পঁচিশ বছরে ফোন সেক্সের প্রবণতা যে বেড়েছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই কিন্তু তার মানে এই নয় যে আজ থেকে ২০-২৫বছর আগে এই বিষয়টির কোনও অস্তিত্ব ছিল না।

এরমাধ্যমে অনেকটাই স্ট্রেসমুক্ত হওয়া যায়। কিন্তু প্রশ্ন হল, প্রেমের শুরুটাই যদি ফোন সেক্স দিয়ে হয়, তবে সম্পর্কের পক্ষে সেটা কতটা ভাল? তাই পার্টনার যদি শুরুতেই ঘন ঘন ফোন সেক্সের জন্য চাপ দিতে থাকেন, তবে আগে আপনার কয়েকটি বিষয়ে সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

১। লকডাউনে প্রেমিক প্রেমিকারা দূরভাষের মাধ্যমে কাছে আসতে চাইবেন, সেটা স্বাভাবিক। কিন্তু সেটা যেন স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে হয়। এমনটা না হয় যে দু’জনের একজন বার বার অন্যজনকে চাপ দিচ্ছেন ফোন সেক্সের জন্য। এটা কোনও ভাবেই সুস্থ সম্পর্কের লক্ষণ নয়।
২। সমস্ত স্মার্টফোনেই এখন রেকর্ডার অ্যাপ ডাউনলোড করা যায়। ফোন সেক্সের পুরো বার্তালাপটি অন্য পক্ষ রেকর্ড করতেই পারে। তাই বুঝেশুনেই পা ফেলা উচিত।

৩। যৌনতা বিষয়টা যদি নেশার পর্যায়ে চলে যায় তবে তা অবশ্যই সম্পর্কের জন্য স্বাস্থ্যকর নয়।
৪। ঠিক যেমন পৃথিবীর বেশিরভাগ মানুষ রাতে, ঘুমোতে যাওয়ার আগে যৌনতায় লিপ্ত হন, ফোন সেক্সও তাই। কিন্তু পার্টনারের যদি এমন দাবি থাকে যে ফোন সেক্স না করলে তাঁর ঘুম হবে না, তবে তিনি জীবনসঙ্গী হিসেবে কতটা উপযুক্ত সেটা ভাবার বিষয়।
৫। পার্টনার যদি ফোন সেক্স করেই ফোন রেখে দিতে চান, তবে সেটাও এক ধরনের বিপদসঙ্কেত বটে। সেখানে বুঝতে হবে যে প্রেমের ভিত্তিটাই শুধু শরীর।

Most Popular