বিয়ের পর থেকেই স্ত্রী যৌনমিলনে অনিচ্ছুক, মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী স্বামী

Fugitive friend kills friend due to love triangle
Image Source: Google

আউটলাইন বাংলা ডিজিটাল ডেস্কঃ বিবাহের পর ২২ মাস কেটে গেলেও স্ত্রী যৌন মিলনে রাজি থাকতো না কখনই। আর এর জেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় ৩২ বছরের স্বামী। যুবকের পরিবার স্ত্রীর বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়া অভিযোগ জানিয়ে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাটি ঘটেছে আমেদাবাদে। মৃত ব্যক্তির পরিবারের লোকেরা অভিযোগ করেছেন দীর্ঘদিন একসঙ্গে দিন কাটালেও দুজনের মধ্যে কোনো দিন যৌন মিলন হয়নি। ফলে মানসিক অবসাদের মধ্যে পরে নিজের মনের সঙ্গে লড়াই করে উঠতে না পেরে আত্মহত্যা করেন তিনি।

গত ২৭ জুলাই তিনি আত্মহত্যা করেন। ওই দিন পরিবারের সকলেই বিশেষ কাজে বাড়ির বাইরে বেরিয়েছিলেন। এবং বাড়ি ফাঁকা থাকায় আত্মহত্যা করেন তিনি। জানা গিয়েছে ওই মৃত ব্যক্তির নাম সুরেন্দ্র সিং। তিনি ভারতীয় রেলওয়েতে কাজ করতেন। জানা গিয়েছে ২০১৬ সালে সুরেন্দ্র সিং-এর প্রথম স্ত্রীর কাছ থেকে বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। এবং তারপর সুরেন্দ্র সিং দ্বিতীয় বিয়ে করেছিলেন ২০১৮ সালে। দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম ছিল গীতা।

এদিকে গীতারও দু বার বিয়ে ভেঙে যায়। এবং তারপরই সুরেন্দ্র সিং-এর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। সুরেন্দ্র সিং-এর মায়ের অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই দুজনে কখনো একই বিছানায় শুতেন না। বিয়ের পর ২২ মাস কেটে গেলেও স্ত্রীকে কাছে না পাওয়ার আক্ষেপে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সুরেন্দ্র সিং। এছাড়াও জানা গিয়েছে চলতি বছরের প্রথম দিকে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে বিবাদের জেরে গীতা শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়িতে গিয়ে ওঠে। ঘটনাটির ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।