Homeবিবিধনেই‌‌ খাবার, পানের অযোগ্য নোনা জল খেয়েই তৃষ্ণা নিবারণ গ্রামবাসীদের

নেই‌‌ খাবার, পানের অযোগ্য নোনা জল খেয়েই তৃষ্ণা নিবারণ গ্রামবাসীদের

Outlinebangla Digital Desk: ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের জেরে হাহাকার নেমে এসেছে জনজীবনে। ঘূর্ণিঝড় চলে গেলেও তার দুর্যোগ এখনও চলছে দিঘা-মন্দারমণিতে। মন্দারমণি ব্লকের অন্তর্গত পুরুষোত্তমপুর গ্রামের অবস্থা বিধ্বস্ত। চারিদিকে জল থাকলেও তৃষ্ণা মেটানোর পানীয় জলের অভাব। টিউবওয়েলের জলের সাথে মিশে গেছে সমুদ্রের নোনা জল। সেই জল বাধ্য হয়ে পান করতে হচ্ছে বাসিন্দাদের।

২৬ মে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে তছনছ হয়ে গেছে বাঙালির প্রিয় পর্যটনকেন্দ্র দিঘা-মন্দারমণি। এখন সেখানে শুধুই ধ্বংসের চিহ্ন। বাঁধ ভেঙে সমুদ্রের নোনা জল ঢুকে প্লাবিত হয়েছে পুরুষোত্তমপুর গ্রাম। চারিদিকে প্রচুর জল থাকলেও পানীয় জল এক ফোঁটাও নেই। তার ফলে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, এই নোনা জলই গ্রামের লোকেরা বাধ্য হয়ে পান করছেন। বেশিরভাগ বাড়ি ভেঙে গেছে। খাবার নেই। তিন দিন ধরে অনেকে খেতেও পারছে না। এই প্রতিকূলতার মধ্যে মন্দারমণির ব্লক মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক গ্রামে পৌঁছান। টিবিউওয়েল খুলে ব্লিচিং দিয়ে পরিষ্কার করে দেওয়া হয়। স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবাণুমুক্ত করার চেষ্টা করেন। শেষ পর্যন্ত সরকারি উদ্যোগে ৩ দিন পর শনিবার গ্রামের পানীয় জলের গাড়ি ঢোকে। তা সংগ্রহের জন্য গ্রামবাসীরা কলসি, ঘড়া নিয়ে সেই স্থানে হাজির হন। তবে এখন শুধু অপেক্ষার দিন গোনা। কতদিনে গ্রামের অবস্থা আবার আগের মত হবে।

এই মুহূর্তে