এই ৫টি বিষয় কখনো লুকাবেন না চিকিৎসকের কাছে

Never hide these 5 issues from the doctor
Image Source: Google

আউটলাইন বাংলা হেল্থ ডেস্ক: আমরা অনেকেই চিকিৎসকের কাছে খোলামেলা ভাবে অনেক কিছু বলি না। এমনকি চিকিৎসকের কাছে গেলেও অনেক কিছু মিথ্যা বলেন বা লুকিয়ে রাখেন। কিন্তু আপনাকে মনে রাখতে হবে, আপনি যে শারীরিক সমস্যার কারণে চিকিৎসকের কাছে গেছেন, তার ভিত্তিতে চিকিৎসক আপনাকে ওষুধ দেবে, যা আপনার ব্যক্তিগত তথ্যাদিসহ জীবনযাপনের ধরনের ওপর নির্ভর করে।

জেনে নিন ৫ টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে যা কখনোই ডাক্তারের কাছে লুকনো ঠিক নয়-
১। বয়স নিয়ে লুকোচুরি করবেন না। অনেকেই চিকিৎসকে সঠিক বয়স বলেন না, সঠিক বয়স জানার মাধ্যমে চিকিৎসকরা বহু রোগ নির্ণয় ও তার স্বরূপকে চিহ্নিত করতে পারেন।
২। খাদ্যাভ্যাস নিয়ে মিথ্যা বলা, বেশ কিছু গবেষণার তথ্য জানাচ্ছে, চিকিৎসকদের কাছে রোগীরা তাদের খাদ্যাভ্যাস নিয়ে মিথ্যা বলেন। অনেকেই সঠিক তথ্য চিকিৎসকের কাছে বলতে চান না। এতে করে ডাক্তারদের প্রেসক্রিপশন দেওয়া ও
সে অনুযায়ী খাবার গ্রহণে নিয়ম বলে দেয়ার ক্ষেত্রে সমস্যার মুখে পড়তে হয়।

৩। ধূমপানের অভ্যাস নিজের ধূমপানের অভ্যাসটি আড়াল করবেন না। কার্ডিওলজিস্ট (হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ) থেকে শুরু করে ডার্মাটোলজিস্ট (চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ) সকল ডাক্তারের কাছেই এই অভ্যাস সম্পর্কে সঠিক তথ্যটি জানাতে হবে। গর্ভপাত
৪। নারীদের জন্য স্পর্শকাতর ও ব্যক্তিগত সমস্যা গর্ভপাতের বিষয় এরিয়ে যাওয়া। গর্ভপাতের বিষয়টি মোটেও হেলাফেলার নয়। অনেক সময় পরিবারের কাছেও এ বিষয়টি নিয়ে কথা বলা সম্ভব হয় না। কিন্তু নিজের স্বাস্থগত বিষয়ে এবং বিশেষভাবে নারী স্বাস্থ্য সম্পর্কিত বিষয়ে গাইনি ডাক্তারের শরণাপন্ন হলে কখনই এ বিষয়ে ভুল তথ্য উপস্থাপন করা যাবে না।

৫। আপনার মানসিক অবস্থা কেমন আছেন ডাক্তারের কাছে এবিষয়ে সঠিক কথাটি বলাই যুক্তিযুক্ত। আপনি কি ক্লান্ত বোধ করছেন মানসিকভাবে, বিষণ্ণতা কিংবা হতাশা জেঁকে বসছে? মনোযোগ কমে গেছে আগের থেকে? এ বিষয়গুলো ডাক্তারের কাছে খোলাখুলি প্রকাশ করুন।