Homeদেশআসছে তৃতীয় ঢেউ, উন্নত করতে হবে টিকাকরণ, সতর্কবার্তা কেন্দ্রীয় পরামর্শদাতার

আসছে তৃতীয় ঢেউ, উন্নত করতে হবে টিকাকরণ, সতর্কবার্তা কেন্দ্রীয় পরামর্শদাতার

Outlinebangla Desk: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাজেহাল দেশবাসী। ভারতে করোনা ক্রমশ ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। হাসপাতালে বেড নেই। অক্সিজেনের আকাল দেখা দিয়েছে। স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে। করোনা সংক্রমণের সাথে সাথে মৃত্যুহারও বাড়ছে। এর মধ্যেই দেশের চিকিৎসকদের দাবি, যেভাবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলেছে তাতে দ্বিতীয় ঢেউয়ের মতো তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়বে দেশে।

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমে কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান উপদেষ্টা ডঃ কে বিজয়রাঘবন বলেছেন, “যে হারে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ছে তাতে তৃতীয় ঢেউ অবশ্যাম্ভাবী। তবে কবে তা আসবে বলা খুবই মুশকিল। আমাদের তৈরি থাকতে হবে এখন থেকেই। এছাড়া আমাদের টিকাগুলিকে আরও উন্নত করতে হবে।” তিনি আরও বলেছেন, ভারতের ডাবল মিউট্যান্ট স্টেনের কারণে এই মারণ ভাইরাস ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।

অন্যদিকে কিছু বিশেষজ্ঞদের অনুমান তৃতীয় ঢেউ শীতকালে আসতে পারে। কর্নাটকের জাতীয় কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের পরামর্শদাতা ও বেঙ্গালুরুর ‘ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ পাবলিক হেলথ’-এর অধ্যাপক ডঃ গিরিধর বাবু বলেছেন, “শীতকালে, বলতে গেলে নভেম্বরের শেষ থেকে ডিসেম্বরের শুরুর মধ্যেই আসতে পারে তৃতীয় ঢেউ। তাই দেওয়ালির আগে ঝুঁকিবহুল ব্যক্তিদের টিকাকরণ হয়ে যাওয়া দরকার। তাহলে অনেক প্রাণকেই রক্ষা করা সম্ভব।”
আরেক অধ্যাপক এম বিদ্যাসাগর জানিয়েছেন, “যদি আগামী ৬ মাসের মধ্যে টিকাকরণের গতি বাড়িয়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে মানুষকে টিকা দিয়ে দেওয়া যায়, তাহলে হয়তো তৃতীয় ঢেউ এলেও তা দ্বিতীয় ঢেউয়ের মতো বিপজ্জনক ও ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারবে না।”

গত ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪ লক্ষ ১৪ হাজার ১৮২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৯২০ জনের। দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২ কোটি ১৪ লক্ষ ৯১ হাজার ৫৯২ জন। দেশে মোট মৃতের সংখ্যা ২ লক্ষ ৩৪ হাজার ০৮৮। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩ লক্ষ ২৮ হাজার ১৪১ জন।

এই মুহূর্তে