Homeজীবন শৈলীThe unburnable book: যে বই আগুনেও পুড়বে না

The unburnable book: যে বই আগুনেও পুড়বে না

Outlinebangla Digital Desk: ‘বই’ এর বিকল্প কিছু হয় না। ‘বই’ এমন একটি উপকরণ, যা প্রত্যেক মানুষকে অতি সহজেই শিক্ষার আলোকে আলোকিত করে তুলতে পারে। তবে গত কয়েক মাস থেকে শিক্ষার মূল অস্ত্র ‘বই’ (Book) নিষিদ্ধকরণ নিয়ে উত্তাল গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। গত ৯ মাসের মধ্যে আমেরিকার ২৬ টি রাজ্যের ৮৬ টি জেলার স্কুল লাইব্রেরি এবং শ্রেণিকক্ষ থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে মোট ১৮৫৬ টি বই। এমনকি স্কুলের সিলেবাস থেকে পাঠ্যপুস্তক বদলে ফেলা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে গ্রন্থ নিষিদ্ধকরণের প্রতিবাদ সরূপ কানাডিয়ান লেখিকা মার্গারেট অ্যাটউড (Margaret Atwood) তাঁর নিজ গ্রন্থে অগ্নিসংযোগ করার কথা চিন্তা করেছিলেন (The unburnable book)।

মার্গারেট অ্যাটউড (Margaret Atwood) নিজের চিন্তা বাস্তবায়িত করার জন্য তাঁর নিজের লেখা উপন্যাস ‘হ্যান্ডমেইড’স টেল’(The Handmaid’s Tale)-এ ফায়ারগান দিয়ে অগ্নিসংযোগ করেন। পরমুহুর্তে দেখা যায় আগুনের শিখায় উপন্যাস পুড়ে ছাই হওয়া তো দূরের কথা কোনো রকম আঁচ লাগেনি তাতে। সম্প্রতি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পেঙ্গুইন র‍্যান্ডাম হাউসে এমনই দৃশ্য দেখা গিয়েছে। নিশ্চয় মনে প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছে, লেখিকা তাঁর নিজের লেখা উপন্যাসে অগ্নিসংযোগ করল? তাও আবার পুড়ল না?

ঠিক কি ঘটেছিল

ফেনল-নির্মিত কভার এবং তাপ-প্রতিরোধী ফয়েল পৃষ্ঠায় ছাপা বই-এ আগুন লাগিয়ে ছিলেন তিনি। যে কারনে বইটি অক্ষত অবস্থায় ছিল (The unburnable book)। লেখিকা মার্গারেট অ্যাটউড (Margaret Atwood) বলেন, কোনো গ্রন্থকে নিষিদ্ধ করলেও, তার অস্তিত্বকে মুছে যায় না। সত্যিকারের পাঠক গ্রন্থ কে খুঁজে নেন। এই গ্রন্থ ২০১৭ সালে প্রকাশিত হবার পর থেকেই এর চাহিদা আকাশ ছোঁয়া। তাঁর এই গ্রন্থ একবার না বহু বার নিসিদ্ধি করা হয়েছে। শুধু মাত্র আমেরিকা নয়, ইতালি, পর্তুগাল, স্পেন সহ একাধিক দেশে নিষিদ্ধ হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে যে বই গুলি নিষিদ্ধ হয়েছে তার সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে কোনো না কোনো বর্ণবাদ, লিঙ্গবৈষম্য, রাজনৈতিক বিতর্ক কিংবা হলোকাস্টের মতো ঘটনা।

লেখিকার দাবি, কোন বইটি ভালো, কোন বই খারাপ তা বিচারের দায়িত্ব থাক পাঠকদের উপর। এছাড়ার তিনি অভিযোগ করেছেন, এই গ্রন্থ নিষিদ্ধকরণের মূল কারন হল, পরবর্তী প্রজন্মের কাছে আসল ইতিহাসকে লুকিয়ে রেখে, সামনে আনছে এক বিকৃত ইতিহাসের জলছবি। এই গ্রন্থ নিষিদ্ধকরণের সেন্সরশিপের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে ‘পিইএন’ আমেরিকা। এ লড়াই লেখকদের বাক-স্বাধীনতা ও শ্রেণিকক্ষে ছাত্রছাত্রীদের স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেওয়ার লড়াই। এই সবকিছুর মাঝেই নিলামে উঠেছে আনবার্নেবল ‘দ্য হ্যান্ডমেইডস টেল’-এর সংস্করণটি। এই নিলাম চলবে আগামী ৭ জুন পর্যন্ত।

আরও পড়ুনঃ Bionic Reading: পড়ার একটি নতুন কৌশল

এই মুহূর্তে