Homeদেশনৃশংস ঘটনা, করোনা সন্দেহে ১৯ বছরের কিশোরীকে চলন্ত বাস থেকে ঠেলে ফেলা...

নৃশংস ঘটনা, করোনা সন্দেহে ১৯ বছরের কিশোরীকে চলন্ত বাস থেকে ঠেলে ফেলা হল, ঘটনাস্থলে মৃত্যু

আউটলাইন বাংলা ডিজিটাল ডেস্কঃ ফের এক মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষি থাকল দেশ। ১৯ বছর বয়সি এক কিশোরিকে করোনা আক্রান্ত সন্দেহে বাস থেকে ঠেলে ফেল দিল বাসের মধ্যে থাকা সহযাত্রীরা। এমনই এক নৃশংস ঘটনা ঘটেছে উত্তরপ্রদেশে। জানা গিয়েছে ওই ১৯ বছর বয়সি কিশোরি উত্তরপ্রদেশের শিকোহাবাদ থেকে দিল্লি যাওয়ার জন্য বাসে চেপেছিলেন, তবে তিনি একা ছিলেন না, সঙ্গেঁ তাঁর মা ছিল। বাসে ওঠার পর থেকেই শারীরিক ভাবে অসুস্থতাবোধ করে ওই কিশোরী।

কারন তাঁর কিডনিতে স্টোন থাকায় ভিড় বাসের মধ্যে গরমের জন্য তাঁর অস্বস্তি হচ্ছিল। জানা গিয়েছে তাঁর কিডনিতে স্টোন থাকার কারনে চিকিৎসা চলছিল। তাঁর এই অসুস্থতায় ভয়াবহতার কারন। ওই ১৯ বছর বয়সি কিশোরিকে অসুস্থ দেখে বাসের বেশ কিছু যাত্রী ভেবে নেয় কিশোরি করোনায় আক্রান্ত। এবং মুহূর্তের মধ্যেই বাসের মধ্যে এই গুজব ছড়িয়ে যায়, ফলে যাত্রীরা রেগে গিয়ে কু-কথা শোনাতে থেকে। এবং বাস থেকে নামানোর জন্যও উঠেপড়ে লাগেন বাসের সহযাত্রীরা।

এই ঘটনায় ১৯ বছর বয়সি কিশোরির মা অনেক আকুতি মিনতি করে তাদের কাছে অনুরোধ করেন যে তাঁর মেয়ে কিডনিতে স্টোন থাকায় এই ভিড় বাসে অস্বস্তিবোধ করছে, কিন্তু কোনো কাজ হয়নি। এই পরিস্থিতি ফলে বাসের কনডাক্টর সহ সহযাত্রীরা এতটাই উত্তেজিত হয়ে পরে যে ওই কিশোরীকে সিট থেকে তুলে টেনে হিঁচড়ে চলন্ত বাস থেকে ঠেলে ফেলে দেয়। এবং রাস্তার মধ্যেই রক্তাক্ত অবস্থায় পরে থাকে ওই নিরীহ কিশোরীটি। এবং ওই খানেই মৃত্যু হয় তাঁর।

পরে মথুরা পুলিশকে অভিযোগ জানালে পুলিশ কোনো অভিযোগ নিতে চায়নি। পরিবারের জানিয়েছে কিশোরীকে খুন করা হয়েছে, তবে এই নৃশংস ঘটনার জন্য উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কাছে রিপোর্ট চেয়েছে দিল্লি কমিশন ফর উইমেন ৷ এছাড়াও দিল্লি কমিশনের চেয়ারপার্সেন স্বাতী মালিওয়াল জানিয়েছেন এই নির্মম ঘটনার জন্য অপরাধীদের খুঁজে বেড় করে শাস্তি দেওয়া হবে।

এই মুহূর্তে