Homeজীবন শৈলীBionic Reading: পড়ার একটি নতুন কৌশল

Bionic Reading: পড়ার একটি নতুন কৌশল

Outlinebangla Digital Desk: প্রত্যেক পড়ুয়াদের কাছে বই হল সবচেয়ে জরুরি অনুষঙ্গ। কিন্তু পড়ুয়াদের একবার প্রশ্ন করুন, বই পড়তে আপনার কেমন লাগে? দেখবেন একেকজনের কাছে এর উত্তর একেক রকম। কেউ বলবে বই নিয়ে বসলেই ঘুম পায়। কেউ বা বলে মনোযোগ হারিয়ে ফেলি। আবার কেউ বলে পড়ার বই বাদে অন্য বই পড়ার সময় হয় না। তবে উত্তর ভিন্ন হলেও মনে রাখতে হবে প্রত্যেকের জন্য বই আবশ্যকীয় উপাদান (Bionic Reading)। স্কুল-কলেজের গণ্ডি পার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বইয়ের সঙ্গেও সম্পর্ক বিছিন্ন হয়ে যায়। ফলে যত দিন যায় বই পড়ার প্রতি আগ্রহ কমে যায়। শুধু তাই না যে কোন ধরনের বড় লেখা দেখলেই ভয় পান। মনে হয় কিভাবে শেষ করবো, মনোযোগ কীভাবে ধরে রাখবো। তাই বড় লেখা দেখলেই এড়িয়ে যান। এই ধরনের প্রবণতাকে বলা হয় “রিডার্স ব্লক”।

“রিডার্স ব্লক” এই ধরণের ভীতি থাকা সত্ত্বেও কোনো দ্বিধা ছাড়াই বড় লেখা পড়ার এক অভিনব নিয়ম আবিস্কার করেছেন (New methods of reading), সুইজারল্যান্ডের লেখক ও টাইপোগ্রাফিক গ্রাফিক ডিজাইনার রেনাটো ক্যাসাট। এই নয়া নিয়ম অনুসরণ করলে অনায়সে পড়তে পারবে এবং যে লেখাটি পড়ছেন সেটাও দীর্ঘক্ষণ মনে থাকবে। এই অভিনব পদ্ধতির নাম দিয়েছেন “বায়োনিক রিডিং” (Bionic Reading)। নতুন অক্ষর নিয়ে কাজ করতে করতেই এই আবিস্কার।

কীভাবে বড় লেখা দ্রুত পড়ে নেওয়া যাবে ((Bionic Reading):

কোনো শব্দের প্রথম বা সংক্ষিপ্ত অংশটুকু হাইলাইটের সঙ্গে সঙ্গে (বোল্ড) করে দেওয়া হয়। যাতে পাঠকদের চোখ ঠিক ওই জায়গাতেই যায়। এর ফলে পুরো লেখার মাঝে ওই নির্দিষ্ট অক্ষরগুলো বেশি চোখে পড়ে এবং মনোযোগটাও সেখানে থাকে। যে কারনে শব্দের প্রথম অংশ পড়েই পাঠক শব্দটা বুঝে নিতে সক্ষম হয়।

তবে এই পদ্ধতি যে একবারে নতুন তা না। এর আগেও দ্রুত পড়ার পদ্ধতি নিয়ে এসেছিল ‘স্পিড রিডিং’। এর মাধ্যমে একটা বাক্যের কয়েকটি শব্দ পড়লেই পুরো বাক্যটি পড়া হয়ে যেত। কিন্তু “স্পিড রিডিং” পদ্ধতিতে পড়াতে খুব একটা সাফল্য আসেনি। কারন পড়ুয়াদের স্পিড রিডিংয়ের জন্য নতুন করে পদ্ধতিটি শিখতে হতো। তবে রেনাটো ক্যাসাটের মতে, বায়োনিক রিডিং নতুন করে শেখার দরকার নেই। শুধু পড়তে পারলেই সাফল্য আসবে। এই নয়া পদ্ধতিতে পড়ার জন্য বায়োনিক রিডিংয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে ফ্রিতেই যেকোনো লেখাকে ‘বায়োনিক রিডিং’ পদ্ধতিতে পরিণত করতে পারবেন। এছাড়াও প্লে স্টোর ও অ্যাপল স্টোরে অ্যাপ রয়েছে।

আরও পড়ুন- Your food is your medicine: আপনার আহার গ্রহনের বিষয়ে আজই সচেতন হন!

এই মুহূর্তে