বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, বায়ুতে ছড়াচ্ছে করনা, সতর্ক হোন

airborne corona number of victims is increasing be careful
বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা, বায়ুতে ছড়াচ্ছে করনা, সতর্ক হোন, Image Sorce: Google

আউটলাইন বাংলা: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। এই করোনা মহামারীর মধ্যে আরও এক অবাক করা তথ্য জানা গেল। সাম্প্রতিক এক গবেষণা থেকে জানা যায়, করোনা ভাইরাস এখন বাতাসে সক্রিয় (covid-19 airborne)। অর্থাৎ শ্বাস নেওয়ার সাথে এই ভাইরাস সুস্থ মানুষের শরীরে ঢুকতে পারে।

জানা গেছে, হাঁচি, কাশি বা কথা বলার সময় আমাদের মুখ দিয়ে যে ড্রপলেট গুলো বেরোয় সেগুলি বাতাসে ছড়িয়ে পড়ে। ফলে যদি করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির ড্রপলেট বাতাসে ছড়িয়ে যায়, সেখান থেকে সুস্থ মানুষের আক্রান্ত হবার আশঙ্কা থাকে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে,ড্রপলেটের সূক্ষ্ম কণাগুলো বাতাসে অনেকদূর ছড়িয়ে পড়তে পারে। এগুলি সাধারণ ড্রপলেটের থেকে আলাদা। সাধারণ ড্রপলেট গুলি ভারী হবার জন্য মাটিতে পড়ে যায়। কিন্তু সূক্ষ্ম ড্রপলেট গুলি মাটিতে পড়ে না। বাতাসে ভেসে বেড়ায়। এর অপর নাম ড্রপলেট নিউক্লিআই।

গবেষকদের মতে,কোভিড সৃষ্টিকারী ভাইরাস Sars-CoV-2 বাতাসেই ছড়াচ্ছে। ল্যানসেটের গবেষণা অনুযায়ী, বন্ধ ঘরে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হবার ঝুঁকি বেশি। কারণ ঘরে বায়ু চলাচল কম হয় (covid-19 airborne)। কিন্তু এইরকম পরিস্থিতি থেকে কবে বেরোনো যাবে তা নিয়ে চিন্তিত বিশেষজ্ঞরা।

তাই এই পরিস্থিতি সামলানোর জন্য কিছু সতর্কতা মেনে চলা উচিত। যেমন-

1. দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। ভিড় জায়গা এড়িয়ে চলতে হবে।
2. ভালো ভাবে মাস্ক পড়তে হবে। নাক মুখ ভালো করে ঢাকতে হবে।
3. কথা বলার সময় মাস্ক পরে কথা বলতে হবে এবং অবশ্যই দূরত্ব বজায় রেখে কথা বলতে হবে।
4. বদ্ধ অফিসে কাজ করতে হলে অফিসের জানলা-দরজা খুলে রাখতে হবে।
5. বায়ু চলাচল কম করে বা করে না এমন ঘরে বেশি না ঢোকাই ভালো।